জুমের সাথে পাল্লা দিচ্ছে ফেসবুকের রুম

করোনার কারণে লকডাউনের সময় জনপ্রিয়তা পায় ভিডিও কলের ফিচার জুম, গুগল মিট, স্কাইপ ও এমএস টিমস। এসব প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে একে অন্যের সঙ্গে যুক্ত হতে থাকে মানুষ। এখন ভিডিও চ্যাটিংয়ের ফিচারের বদৌলতে প্রাতিষ্ঠানিক মিটিং ও অনলাইন ক্লাস হচ্ছে।

প্রতিনিয়ত নতুন নতুন ফিচার নিয়ে আসছে ফেসবুক। এবার ভিডিও কলের নতুন ফিচার নিয়ে এসেছে জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়াটি। মোবাইল ও কম্পিউটার থেকে ম্যাসেঞ্জার রুম নামের এ প্ল্যাটফর্ম দিয়ে গ্রুপ ভিডিও কলে যুক্ত হওয়া যাবে।।

ফেসবুক ব্যবহারকারীরা মেসেঞ্জার অ্যাপের মাধ্যমে ভিডিও চ্যাটরুমে সর্বোচ্চ ৫০ জনকে যুক্ত করতে পারবে। ফেসবুক অ্যাকাউন্ট না থাকলেও এটি ব্যবহার করা যাবে। চ্যাটের ক্ষেত্রে কোনো নির্দিষ্ট সময়সীমা নেই।

বেশ কিছুদিন ধরে ভিডিও চ্যাটের জন্য তুমুল জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে জুম। তবে সিকিউরিটি ও ব্যক্তিগত ইস্যুতে বিতর্কও ছড়িয়েছে গত দুই মাস। এ অবস্থায় ফেসবুকের রুম হতে পারে জুমের বিকল্প। এপ্রিলেই চালু হওয়ার কথা ছিল ফেসবুকের এ ফিচার। কিন্তু নানান জটিলতায় শেষ পর্যন্ত জুলাইয়ের মাঝামাঝি এসে এ সেবা চালু করলো ফেসবুক।

ফেসবুক রুম নামে নতুন একটি টুলস প্রবর্তন করেছে। এটি মূলত ভিডিও কলিং টুলস। তবে হোয়াটসপ, ইমো, ম্যাসেঞ্জারে ভিডিও কলিং সুবিধা থাকতে ফেসবুক কেন রুম টুলসের প্রবর্তন করল?

এমন প্রশ্ন সবারই আসবে। এ বিষয়ে ক্রাফের প্রেসিডেন্ট জেনিফার আলম বলেন, ফেসবুক রুমের কিছু গুরুত্বপূর্ণ টুলস আছে যা অন্যান্য মিট অ্যাপগুলোতে বিদ্যমান নয়, নিম্নলিখিত বিষয়গুলো ফেসবুক রুমে এড করা হয়েছে, প্রয়োজনের তুলনায় হয়তো পরবর্তী সময়ে এর পরিধি আরও বাড়তে পারে।

১) এতে আপনি পছন্দের লোকদের এড করতে পারবেন।

২) একসঙ্গে ৫০ জনকে আপনি ভিডিও কল দিতে পারবেন।

৩) শুধু যে ফেসবুক থাকলেই তারা এ কলে যুক্ত হতে পারবেন এমন নয়, বরং যাদের ফেসবুক নাই তাদের লিংক দেয়া হলে শুধু লিংকে ক্লিক করলেই তিনি আপনার ভিডিও কলে যুক্ত হতে পারবেন।

৪) আপনি ইচ্ছে করলে রুমের সকল সদস্যদের ভিডিও কল দিতে পারবেন। আবার রুমের সদস্যদের মধ্যে কেবল কয়েকজনকে কল দিতে পারবেন।

৫) আপনি চাইলে কাউকে রুম থেকে বের করে দিতে পারবেন, আবার কারো কল লক করে রাখতে পারবেন।

৬) জুম অ্যাপসে যেখানে সময় নির্দিষ্ট করে দিয়েছিল সেখানে রুম টুলস আনলিমিটেড ভিডিও কলিংয়ে কথা বলার সুবিধা দেবে।

বরাবরই ফেসবুকে বিভিন্ন ধরনের সিকিউরিটি নিয়ে গ্রাহকরা সমস্যায় পরে, সিকিউরিটি বিষয়ে ক্রাফের টেকনিক্যাল ক্রু বি এম ইয়ামিন বলেন, ফেসবুক রুম ভিত্তিক যে নতুন ফিচার এড হয়েছে এখানে কোনো ধরনের নিরাপত্তা ঝুঁকি নেই, কারণ এর জন্য গ্রাহক আলাদাভাবে কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে না এবং ফেসবুক যে সমস্ত পারমিশন নিয়ে থাকে সেগুলোই বিদ্যমান।

জুম অ্যাপস নিয়ে যেখানে নিরাপত্তার কথা উঠছিলে সেখানে ফেসবুকের রুম এখন পর্যন্ত বেশ নিরাপদ। এটি সংগঠন, গ্রুপ চ্যাট, ক্লাস নেওয়া, কনফারেন্স প্রভৃতিতে বেশ ভালো সুবিধা দেবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *